জবি শিক্ষার্থীর পাঠাগার স্থাপনায় হামলা-ভাংচুর

  জবি সংবাদদাতা  মঙ্গলবার | জুলাই ২০, ২০২১ | ১২:০০ এএম

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের ২০১৪-২০১৫ সেশনের শিক্ষার্থী এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম সাদেক কর্তৃক তাঁর নিজ এলাকা ডিমলা থানাধীন ছাতনাই বালাপাড়া ইউনিয়নে প্রতিষ্ঠিত "বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগারের" সাইনবোর্ড ও রোপিত গাছ প্রকাশ্যে উপড়ে ফেলেছে একই এলাকার মজিবর রহমান ও তার ছেলেরা।

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) বিকেল ৪ টায় কয়েকশত মানুষের সামনে এই ঘটনা ঘটে। 

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি রক্ষার্থে নিজ জমিতে একটি সাইনবোর্ড ও দশটি বিভিন্ন ধরণের ফলজ গাছ রোপন করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম সাদেক। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রোপিত বৃক্ষ উপড়ে ফেলা হয় ও সাইনবোর্ডটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। এই কাজটি করেন মজিবর রহমান ও তার ছেলে ছেলে মো. লাভলু রহমান, রোকন ইসলাম ও  নাতি। এ সময় বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের নামে নানা ধরনের কটুক্তি করতে করতে সাইনবোর্ডটি ভেঙ্গে ফেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী আবু রায়হান রতন বলেন, পূর্বশত্রুতার জের ধরে তারা অনেক মানুষের সামনেই বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগারের সাইনবোর্ডটি ও গাছগুলো উপড়ে ফেলে। 

পাঠাগারের উদ্যোক্তা জাহিদুল ইসলাম সাদেক বলেন, জাতির জনকের স্মৃতি রক্ষার্থে আমি একটি পাঠাগার প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেই এবং বৃক্ষরোপণ করি। কিন্তু আমরা গাছ লাগিয়ে আসার পর পরেই দূর্বৃত্তরা সাইনবোর্ড ও গাছ উপড়ে ফেলে এবং জাতির জনক ও তার পরিবার নিয়ে নানাধরণের কুৎসা মন্তব্য করতে থাকে। আমি দূর্বৃত্তদের যথাযথ শাস্তি দাবি করছি এবং আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।