শতায়ু'র প্রার্থনা

সাধ্যের যতটুকু আছে পুঁজি তাঁর কাছে মেধা-শ্রম-ঘাম
সবটুকু দিয়েই করছেন সাধনা তিনি আজও অবিরাম।

বাংলাদেশ আজ তাঁহারই মেধায় উন্নয়নের মহা-বিস্ময়
নেতৃত্বের যতো চমক আছে তাঁর ছড়িয়ে গিয়েছে বিশ্বময়।

শত্রুর মুখে মাখিয়া কালি, ভাঙ্গিয়াছেন বিদ্বেষের তীর
জবাব দিয়েছেন সদা কর্মেই তিনি, হয়েছেন কর্মবীর।

দিকে দিকে তাঁর ছড়িয়েছে আলো, যতো আছে মহাযজ্ঞ
তাঁর গুণে আজও মুগ্ধ সবাই জ্ঞানী গুণী যতো বিশেষজ্ঞ।

তাঁর হৃদয়ের বিশালতা আজ আকাশকে গিয়াছে ছাড়ি
উদারতা তাঁকে মহান করেছে, শত্রুকে কাছে এনেছে কাড়ি।

জন্ম তাঁহার হয়েছে যথার্থ জাতির পিতার আলোকিত ঘরে
বঙ্গবন্ধুর রক্তধারা সবই আছে গো তাঁর, আছে উন্নতশিরে।

শেখ হাসিনার জন্মশোভায় বাঙালি পেয়েছে আশার আলো
বাংলার তিনি দেশরত্ন, জননেত্রী মোদের, মানুষ সাদাকালো।

দুঃখেরবাণী শুনিলেই ছলছল করে উঠে তাঁর আঁখিযুগল
মায়ার বাঁধনে মুছে দেন তিনি নিঃস্বমানবের চোখের জল।

সকলের তরেই রাখিয়াছেন খুলিয়া সরলতার মহাদ্বার
উদার বিশ্বের অগ্রপথিক তিনি, মহান জননী মানবতার।

সরলতা তাঁহার অঙ্গভূষণ, আদর্শের তিনি মূর্তপ্রতীক 
বিশ্বের তিনি গর্বের ধন, বাঙালির সেরা মুজিব সৈনিক।

তাঁর হুংকারেই কেঁপে কেঁপে ওঠে অপরাধীদের যতো চিত্ত
কাড়িয়া বারবার আনিয়াছেন তিনি লুটেরাদের ভৈবব-বিত্ত। 

ধর্ষক খুনি চোর ডাকাত জঙ্গি মাফিয়া যতো আছে সব
তাঁরই ভয়ে কেঁপে কেঁপে করে চিৎকার-বাঁচাও বাঁচাও রব।

সকলের তরে হাঁকিয়া বলেন তিনি হৃদয়ে জাগ্রত সেই ঘৃণায়
বলো, অমানুষের কাজ কি কখনো কোনো মানুষকে মানায়?

মহাবিশ্বের বিস্ময় তিনি, প্রভাত রবির মতো উঠিয়া একা
এমন দীপ্তশিখার সাথে আগে হয়নি কখনো বিশ্বের দেখা।

তাঁরই আদর্শের মহাজাগরণে জাগিয়া উঠিয়াছে মহাবিশ্ব
অপলক চোখে দেখছে সবাই বাংলাদেশের মনোরম দৃশ্য। 

শুভ হোক আজ, শুভ জন্মদিন মহান নেত্রীর আরও বহুদিন
দোয়া মোনাজাত প্রার্থনা করি,শতায়ু তাঁর চাই, চাই প্রতিদিন।