প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২২ এপ্রিল

সরকারি প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক পদের নিয়োগ পরীক্ষা আগামী ২২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে জানা গেছে। এই পরীক্ষার মাধ্যমে ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। দেশের ৬১ জেলায় একযোগে এ পরীক্ষা নেওয়া হবে। দেশের সব জেলার প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারদের সঙ্গে মঙ্গলবার এক ভার্চ্যুয়াল সভায় প্রাথমিকের মহাপরিচালক পরীক্ষা নিয়ে এই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছেন। গতকাল বুধবার সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে, গত ১৫ মার্চ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে বলা হয়, আগামী ৮ এপ্রিল থেকে সরকারি প্রাথমিকের ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক পদের নিয়োগ পরীক্ষা শুরু হতে পারে। পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ পরীক্ষা আগামী ১৩ মে শেষ হবে। তবে এখন বেশ কয়েকটি নির্ভরযোগ সূত্র সারবাংলাকে জানায়, এই পরীক্ষা ৮ এপ্রিল নয়, ২২ এপ্রিলে শুরু হবে। এটাই নতুন নির্দেশনা। আগের চিঠিতে লিখিত পরীক্ষার যে তিনিটি তারিখ উল্লেখ করা হয়েছিল সেখানেও ২২ এপ্রিলের কথা বলা হয়েছিল। সেটি ছিল পরীক্ষার তৃতীয় ধাপের সময়। ওই চিঠিতে বলা হয়েছিল, আগামী ৮, ১৫ ও ২২ এপ্রিল এবং ১৩ মে বিকেল ৩টায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে এখন নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরীক্ষাটি ২২ এপ্রিলেই শুরু হবে।
উল্লেখ্য, সহকারী শিক্ষকের ৩২ হাজার ৫৭৭টি শূন্য পদে নিয়োগের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। ইতোমধ্যে অবসরজনিত কারণে আরও ১০ হাজারেরও বেশি সহকারী শিক্ষকের পদ শূন্য হয়ে পড়েছে। এতে বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষক ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এ সমস্যার সমাধানে মন্ত্রণালয় আগের বিজ্ঞপ্তির শূন্য পদ ও বিজ্ঞপ্তির পরের শূন্য পদ মিলিয়ে প্রায় ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়।